Jump to content

Close

Welcome to বাংলা ফ্যামিলি

বাংলা ফ্যামিলিতে আপনাকে স্বাগতম
উন্মুক্ত ও স্বাধীন মত প্রকাশের সুবিধা প্রদানকারী মাধ্যম

  • উন্মুক্ত ও স্বাধীন মত প্রকাশের সুবিধা প্রদানকারী মাধ্যম
  • আমরা সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে, দেশের পক্ষে, স্বাধীনতার পক্ষে।
  • ওয়েবসাইট টি ৮টি কালার এ ব্যাবহার করতে পারবেন।
  • চ্যাট, ফোরাম, ব্লগ, কমিউনিটি একইসাথে।

PLEASE VISIT TO OUR NEW WEBSITE http://upworkbangladesh.com


Photo
- - - - -

শোক দিবসের অনুষ্ঠানে যুবলীগ নেতা খুন


  • রিপ্লাই দিতে লগ ইন করুন
  • Topic QR Code
এই টপিক এ মন্তব্য নাই

#1 OFFLINE   Ashikur Rahman

Ashikur Rahman

    Member

  • Members

  • PipPipPip
  • 312 posts
  • Posted 21 আগস্ট 2015 - 08:30 অপরাহ্ণ

                                         ea22467a60b05355e4dbd71f5171b43b-33.jpg

    গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভা চলাকালে উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম (৫০) প্রতিপক্ষের হামলায় খুন হয়েছেন। আজ শুক্রবার বিকেলে চন্দ্রা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় সরকারের একজন মন্ত্রী আলোচনা অনুষ্ঠানের মঞ্চে বসা ছিলেন। 
    এর আগে গত ১৫ আগস্ট কুষ্টিয়ায় জাতীয় শোক দিবসের র‍্যালি শেষে আওয়ামী লীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের মধ্যে সংঘর্ষে আওয়ামী লীগের এক কর্মী নিহত হন।
    সম্প্রতি বিভিন্ন স্থানে ছাত্রলীগ ও যুবলীগে অন্তর্কোন্দল, পদধারী নেতাদের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড এবং ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সম্প্রতি কয়েকজন নেতা নিহত হওয়ার ঘটনা দেশজুড়ে ব্যাপকভাবে আলোচিত হচ্ছে। এর মধ্যেই অভ্যন্তরীণ কোন্দলে যুবলীগের আরও একজন নেতা খুন হলেন। 
    এলাকাবাসী ও নেতা-কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কালিয়াকৈর পৌর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আজ শুক্রবার বিকেলে চন্দ্রা এলাকায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু কলেজ মাঠে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। 
    কালিয়াকৈর পৌর আওয়ামী লীগের ৫ নম্বর ওয়ার্ড সভাপতি আবদুল আজিজের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। অনুষ্ঠান শুরুর কিছু সময় পর বক্তব্য দেন রফিকুল ইসলাম। তিনি বক্তব্য শেষ করে মঞ্চ থেকে নেমে কলেজের পশ্চিম পাশে একটি চায়ের দোকানে বসে চা পান করছিলেন। এ সময় অনুষ্ঠান চলছিল। 
    স্থানীয় লোকজন জানান, রফিকুল যখন চা পান করছিলেন তখন প্রতিপক্ষের ১০-১২ জন যুবক তাঁর ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। তারা তাঁকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়। পরে আশপাশের লোকজন ও দলীয় নেতা-কর্মীরা তাঁকে উদ্ধার করে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। মৃত্যুর খবর অনুষ্ঠান স্থলে পৌঁছালে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক অনুষ্ঠানে কোনো বক্তব্য না দিয়েই চলে যান। 

    কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক জানান, কারা রফিকুলের ওপর হামলা চালিয়েছে সে বিষয়ে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।




    1 জন এই টপিকটি পরতেছেন

    0 members, 1 guests, 0 anonymous users